Uncategorized

বিড়াল/ কুকুরের কানের মাইট (Ear mite in Cat/ Dog)

➤ কানের মাইট কি?
কানের মাইট হল এক ধরনের পরজীবী যা ত্বকের উপরিভাগে বাস করে। এরা দেখতে আকারে পিন হেড এবং মাকড়শার মতো। যে কোন বয়সের বিড়াল/ কুকুরে ইয়ার মাইট হতে পারে।
➤ বিড়াল/ কুকুরের ইয়ার মাইট কি সংক্রামক রোগ?
হ্যাঁ, ইয়ার মাইট মারাত্মক সংক্রামক রোগ এবং বিড়াল থেকে বিড়ালে অথবা কুকুর থেকে কুকুরে ছড়াতে পারে।
➤ পোষা-প্রাণী থেকে মানুষে ইয়ার মাইট ছড়াতে পারে?
ইয়ার মাইট সরাসরি মানুষে ছড়ানোর মতো কোন তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি। খুব বিরল কিছু ক্ষেত্রে পোষা-প্রাণীর মালিকের শরীরে ফুসকুড়ি দেখা গেছে।
➤ লক্ষনসমূহ :
☞ঘনঘন কান চুলকানো
☞আক্রান্ত জায়গা থেকে লোম উঠে যাওয়া
☞অতিরিক্ত চুলকানোর জন্য ট্রমা
☞মাথা কাপা
☞তীব্র অস্তিকর গন্ধ
☞বাদামি/কফি রংয়ের তরল পদার্থ নির্গত হওয়া
☞কুচকানো
☞লাল হয়ে, ফুলে উঠা।
➤ কারন :
আক্রান্ত পোষা-প্রাণীর সংস্পর্শে থাকলে অথবা একই খেলনা ব্যবহার করলে বা একই থাকার জায়গা ব্যবহারের কারনে।
➤ বাসায় কানের মাইটের চিকিৎসা :
সবসময় কান পরিষ্কার রাখতে হবে। বাসায় কান পরিষ্কারের ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত ধাপগুলো মেনে চলতে পারেন :
☞একটি পরিষ্কার স্থান নির্বাচন করুন
☞ভেট অনুমোদিত ইয়ার ড্রপ / লোশন ব্যবহার করুন
☞কানের ভাজে/ গর্তে অল্পপরিমাণে ইয়ার ক্লিনার ঢালুন এবং হালকা ম্যাসেজ করুন। ভালো করে পরিস্কার করার জন্য টিস্যু /তোয়ালে /পাতলা কাপড় ব্যবহার করুন। কটন বাড ব্যবহার করলে অবশ্যই কটন বাডের মাথায় সোয়াব লাগিয়ে নিতে হবে সেক্ষেত্রে অতিরিক্ত সতর্কতা জরুরী।
☞অতিমাত্রায় ইয়ার মাইট হলে ভেটের শরণাপন্ন হতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *